বন্ধুর বিরুদ্ধে অভিযোগের মীমাংসা করে দেওয়ার কথা বলে এক তরুণীকে ধর্ষণের অভিযোগে ডিএমপির শেরেবাংলা নগর থানার এক উপ-পরিদর্শককে (এসআই) গ্রেফতার করা হয়েছে। গ্রেফতার এসআইয়ের নাম খায়রুল আলম (৩২)।

মঙ্গলবার (৩১ আগস্ট) সন্ধ্যায় ডিএমপির মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশন্স বিভাগের উপ-কমিশনার (ডিসি) মো. ফারুক হোসেন  এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, মঙ্গলবার সকালে গুলশান থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলার পর খায়রুলকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারের পর গুলশান থানায় করা মামলায় ওই এসআইকে আদালতে পাঠিয়ে পাঁচদিনের রিমান্ড চাওয়া হয়েছে।

মামলার এজাহারে বলা হয়, মাসখানেক আগে এক বন্ধুর বিরুদ্ধে শেরেবাংলা নগর থানায় অভিযোগ করতে গিয়ে এসআই খায়রুলের সঙ্গে ওই তরুণীর পরিচয় হয়। তার সূত্র ধরে খায়রুল তাকে বিভিন্ন সময় ফোন করে দেখা করতে বলতেন। গত সোমবার সকালে অফিসে যাওয়ার সময় স্কয়ার হাসপাতালের কাছে পান্থপথে খায়রুল ওই তরুণীকে দেখতে পান। বন্ধুর বিরুদ্ধে অভিযোগের মীমাংসা করে দেওয়ার কথা বলে এসআই খায়রুল তাকে মোটরসাইকেলে করে গুলশানের নিকেতনে এক বাসায় নিয়ে যান।

২০ বছর বয়সী ওই তরুণীর অভিযোগ, তিনি বাসায় নিয়ে তাকে ধর্ষণ করেন। পরে তাকে মোটরসাইকেলে করে পান্থপথে নামিয়ে দেন। ধর্ষণের বিষয়টি কাউকে না জানানোর জন্য বিভিন্ন ধরনের ভয়-ভীতি দেখান বলেও এজাহারে উল্লেখ করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.