নিজস্ব প্রতিবেদকঃ
লক্ষ্মীপুরে যৌতুক না পেয়ে স্ত্রীকে শারিরিক ও মানসিক নির্যাতন করে দ্বিতীয় বিয়ে করার প্রস্তুতি নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে স্বামী সজীব চন্দ্রের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় প্রতিকার ও বিচারের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন করেছে স্ত্রী মিলি রানী পাল। ১ জানুয়ারি (শনিবার) দুপুরে সদর উপজেলার তেওয়ারীগঞ্জ ইউনিয়নে নিজ বাড়িতে ভুক্তভোগী পরিবারের ব্যানারে এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে স্ত্রী মিলি রানী পাল বলেন, ২০১১ সালে কুমিল্লা বড়ুয়া থানাধীন লক্ষীপুর গ্রামের সজীব চন্দ্র পালের সাথে পারিবারিক ভাবে সনাতনী নিয়ম অনুযায়ী বিয়ে হয়। সাংসারিক জীবনে তাদের ঘরে ১টি পুত্র সন্তান রয়েছে। বিয়ের পর থেকে ২ লক্ষ টাকা যৌতুক দাবি করে স্বামী সজিব। দাবিকৃত যৌতুকের টাকা না পেয়ে শশুর-শাশুড়ি, দেবর ও সজীব নিজে মারধর সহ নানা ভাবে শারিরিক-মানসিক নির্যাতন চালায়। গত ১ বছর পূর্বে নিজের সন্তানকে জোরপূর্বক রেখে দিয়ে মিলিকে বাবার বাড়ি পাঠিয়ে দেয় শ^শুর বাড়ির লোকজন। বর্তমানে স্ত্রী মিলিকে মানসিক রোগী সাজিয়ে আরেকটা বিয়ে করার প্রস্তুতি নিচ্ছে। এসব ঘটনায় প্রতিকার চেয়ে প্রশাসন ও প্রধানন্ত্রীর সহযোগিতা এবং বিচারের দাবি করেছেন ভুক্তভোগী এই নারী।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, ভুক্তভোগীর নারীর মা শেফালী পাল, ভাই মৃদু কুমার পাল।

Leave a Reply

Your email address will not be published.