নিজস্ব প্রতিনিধি:
লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার ভবানীগঞ্জ ইউনিয়নে মোক্তার হোসেন বিপ্লবের বিরুদ্ধে এক ব্যবসায়ী পরিবারকে হত্যাসহ বিভিন্ন হুমকির অভিযোগ উঠেছে। এ আতঙ্কে ব্যবসায়ী পরিবার পালিয়ে বেড়াচ্ছে।
সোমবার (১ আগস্ট) লক্ষ্মীপুর পৌর শহরের একটি চাইনিজ রেষ্টুরেন্টে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে ভূক্তভোগী পরিবার এ অভিযোগ করেন। সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন- স্থানীয় ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী মনির আহম্মেদ ভূঁইয়া। অভিযুক্ত মোক্তার হোসেন বিপ্লব লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার ভবানীগঞ্জ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সহ-সভাপতি ও চোরাস্তা মার্চেন্ট কমিটির সভাপতি।
সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ করে ভুক্তভোগী পরিবার বলেন, গত ২৫ জুলাই লক্ষ্মীপুর সিনিয়র সহকারী জজ আদালতের নির্দেশে মুনির আহম্মেদকে জমির (১৪ শতাংশ) দখল বুঝিয়ে দেওয়া হয়েছে। উচ্ছেদ ও অগ্রক্রয়ের মামলার রায় পাওয়ায় আদালতের নির্দেশে ওই জমির ১২ শতাংশে থাকা সিমানা প্রাচীর ও ২ শতাংশে থাকা দুইটি দোকানঘরসহ সকল স্থাপনা তুলে ফেলা হয়। কিন্তুআদালতের রায় ও উচ্ছেদ অমান্য করে গত ২৭ জুলাই রাত ৩টার দিকে বেশ কিছু লোকজনকে নিয়ে ওই সম্পত্তি পূনরায় জবরদখল করে নেয় তারা। এর পর থেকে প্রাণনাশের হুমকীসহ বিভিন্ন হুমকী প্রদান করে বিপ্লব ও তার লোকজন। বর্তমানে গত ১ সপ্তাহ যাবত প্রাণের ভয়ে মনির আহম্মেদ ও তার পরিবার এলাকাছাড়া বলে অভিযোগ কার হয়। এসময় তিনি  পুলিশ সুপার ও জেলা প্রশাসকের হস্তক্ষেপ কামনা করেন। এতে উপস্থিত ছিলেন- মনিরের স্ত্রী মনি আক্তার, মা নুরজাহান বেগম ও শিশু সন্তান মুনতাসির।
এব্যাপারে সাবেক আওয়ামী লীগ নেতা মোক্তার হোসেন বিপ্লব বলেন, আদালত কোন নোটিশ না করে আমার ভাউন্ডারী ওয়াল ভেঙ্গে দিয়েছে। এসময় হুমকীর বিষয়টি অস্বীকার করেন। এছাড়া নির্বাচনের পর থেকে দলীয় আর কোন পদে নাই বলে জানান তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.