লক্ষ্মীপুরের কমলনগরের হাজিরহাট ইউনিয়নে মাওলানা ছালেহ উদ্দিন আহাম্মদ (৫৫) নামে এক মাদ্রাসা শিক্ষকের শ্বাসকষ্টে মৃত্যু হয়েছে। করোনা সন্দেহে প্রশাসন ১২ পরিবারকে লকডাউন করে দিয়েছে।
বৃহস্পতিবার (৯ এপ্রিল) বিকেলে লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। মৃত ছালেহ আহাম্মদ উপজেলার হাজিরহাট ইউনিয়নের চরজাঙ্গালীয়া হাফিজিয়া মাদ্রাসা এলাকার বাসিন্দা এবং স্থানীয় সুফিয়া দারুল আমান ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসার আরবী বিষয়ের সহকারী শিক্ষক ছিলেন।
কমলনগর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. আবু তাহের জানান, ওই শিক্ষক দীর্ঘদিন যাবত শ্বাসকষ্ট ও ডায়াবেটিসে ভুগছিলেন।
বুধবার ডায়াবেটিসের সঙ্গে শ্বাসকষ্ট দেখা দিলে তাকে লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বৃহস্পতিবার বিকেলে তিনি মৃত্যুবরণ করেন।
আজ সন্ধ্যায় লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাঃ আনোয়ার হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করেন।
তিনি বলেন, মৃত শিক্ষকের শরীরে করোনার উপসর্গ (শ্বাসকষ্ট) থাকায় তার নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য বাংলাদেশ ইন্সটিটিউট অব ট্রপিক্যাল অ্যান্ড ইনফেকসাস ডিজিজে (বিআইটিআইডি’তে) পাঠানো হয়েছে।
স্থানীয়রা জানান, মৃত ছালেহ আহম্মদ পুকুরে পড়ে পায়ে প্রচন্ড আঘাত পান। দীর্ঘদিন যাবত তার ডায়বেটিস ও পেসার বাড়তি থাকায় তিনি বেশি অসুস্থ হয়ে পড়েন। অবস্থার অবনতি হলে তাকে লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বৃহস্পতিবার বিকেলে তিনি মৃত্যুবরণ করেন।
কমলনগর থানার অফিসার ইনচার্জ মুহাম্মদ নুরুল আবছার জানান, এ ঘটনায় মৃত ওই শিক্ষকের আশে পাশের ১২ পরিবারকে লকডাউন করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.