বরিশালের হিজলা থানার ধুলখোলা ইউনিয়নের কুঞ্জপট্টি এলাকার মেঘনা নদীর পাড় থেকে গত ১৫  মার্চ গলাকাটা অজ্ঞত নারীর লাশ উদ্ধার করে হিজলা থানা পুলিশ।

লাশ উদ্ধারের ৯৫ দিন অতিবাহিত হলেও আজও তার পরিচয় পাওয়া যায়নি অজ্ঞাত নারীর । হিজলা থানা অফিসার ইনচার্জ অসীম কুমার সিকদার বলেন, গত মার্চ মাসের ১৫ তারিখ কুঞ্জপট্টি এলাকার মেঘনা নদীর পাড় থেকে অজ্ঞত নারীর গলাকাটা লাশ উদ্ধার করা হয়।

আমরা প্রাথমিক ভাবে লাশের গায়ে ক্ষত চিহৃ থাকার ধারন করা যাচ্ছে এটি একটি হত্যা। এব্যপারে হিজলা থানায় পেনাল কোড এর ৩০২/২০১/৩৪ ধারায় একটি মামলা হয়। মামলা নং ১৪। অজ্ঞত লাশ ময়না তদন্ত শেষে বেওয়ারিশ থাকায় আঞ্জুমান কবর স্থানে দাফন করা হয়েছে।

লাশের বর্ননা দিয়ে ওসি বলেন অজ্ঞত নারীর আনুমানিক বয়স ৩০ বছর, মুখমন্ডল গোলাকার, মাথার চুল কালো লম্বা আনুমানিক দের ফুট, গায়ের রং ফর্সা, উচ্চতা আনুমানিক ৫ ফুট, গায়ে এ্যাস ও টিয়ে রংয়ের ছাপার কামিজ, নেভি ব্লু রংয়ের স্যালোয়ার।

হাতের নখে মেহেদীর রং লাগানো ছিল। তিনি আরো বলেন লাশের প্রকৃত নাম ঠিকানা সনাক্ত করা গেলে হত্যার আসল রহশ্য বেরিয়ে আসবে। লাশের প্রকৃত পরিচয় সনাক্তের জন্য লাশের অভিবাবকরা যেন হিজলা থানায় অথবা বরিশাল পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে যোগাযোগ করার অনুরোধ জানায়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.