করোনাভাইরাসের ভারতীয় ধরনকে ‘উদ্বেগজনক ধরন’ হিসেবে বর্ণনা করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)। গতকাল সোমবার ডব্লিউএইচওর জ্যেষ্ঠ বিজ্ঞানী মারিয়া ভান এ তথ্য জানান। খবর : আল জাজিরার।

তিনি বলেন, ‘ভারতে শনাক্ত হওয়া করোনাভাইরাসের ধরন বি.১.৬১৭ দ্রুত সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ার বেশকিছু প্রমাণ মিলেছে। এ কারণে, করোনার এই ধরনকে আমরা বিশ্বব্যাপী উদ্বেগের বলে বিবেচনা করছি।’

২০২০ সালের অক্টোবরে ভারতে প্রথম করোনার বি.১.৬১৭ ধরন শনাক্ত হয়। মহামারি করোনাভাইরাসের এই ধরনটি অতি সংক্রামক। এ ধরনের কারণে ভারতে করোনা পরিস্থিতি ভয়ঙ্কর আকার ধারণ করেছে। সংক্রমণের দ্বিতীয় ঢেউয়ের আঘাতে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে পুরো ভারত।

ভারতে করোনাভাইরাস সংক্রমণ ও মৃত্যুর ঊর্ধ্বগতিতে গত মাসে তীব্র উদ্বেগ প্রকাশ করেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) প্রধান তেদ্রোস আধানম গেব্রিয়েসুস। সতর্কবাণী উচ্চারণ করে তিনি বলেন, ভারতের রেকর্ড সংক্রমণ হৃদয়বিদারকের চেয়েও বেশি কিছু। এই সঙ্কট মোকাবিলায় দেশটির পাশে দাঁড়ানোর ঘোষণা দিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।

এদিকে সোমবার সকালে দেশটির স্বাস্থ্য অধিদফতরের প্রতিবেদনের বরাত দিয়ে আনন্দবাজার পত্রিকা জানায়, গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন আরও ৩ হাজার ৭৫৪ জন। এ সময়ে করোনা শনাক্ত হয়েছে ৩ লাখ ৬৬ হাজার ১৬১ জনের। এর ফলে দেশটিতে টানা চারদিন পর করোনা শনাক্ত ৪ লাখের নিচে নামল। টানা তিনদিন পর করোনায় মৃত্যু নেমেছে চার হাজারের নিচে।

ভারতে করোনায় মোট মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২ লাখ ৪৬ হাজার ১১৬ জনে। আর আক্রান্তের মোট সংখ্যা ২ কোটি ২৬ লাখ ৬২ হাজার ৫৭৫ জনে দাঁড়িয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.