August 1, 2021, 10:06 am
ব্রেকিং :
শিরোনাম:
রায়পুর-ফরিদগঞ্জ সড়কে আনন্দ বাসের ধাক্কায় মটরসাইকেল আরোহী নিহত উইঘুর মুসলিম নারীদের ইলেক্ট্রিক শক দিয়ে গর্ভপাত করছে চীন সরকার চীনে নতুন ফ্লু ভাইরাস শনাক্ত, রয়েছে মহামারির শঙ্কা: বিবিসি লক্ষ্মীপুর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট নুরউদ্দিন চৌধুরী নয়ন করোনায় আক্রান্ত। দৈনিক আমাদের লক্ষ্মীপুর এর সম্পাদক ও প্রকাশক বায়েজীদ ভূঁইয়া তাকে দেখতে যান।

রায়পুরে এক প্রতারকের বিয়ের খপ্পরে ১৩ নারী‘র সম্ভ্রমহানী অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিনিধি: একটি বা দুইটি নয়,পরপর ১৩ জন অবলা নারীকে নিজের প্রতারনার ফাঁদে ফেলে প্রথমে বিয়ে করে দেহভোগ আবার টাকা পয়সা,স্বর্নালংকার লুটে নিয়ে পরে ডিভোর্স নামের হলি খেলায় মেতে ওঠার অভিযোগ মিলেছে লক্ষ্মীপুর জেলাধীন রায়পুর উপজেলার পারভেজ হোসেন রাছেল (৩৫) নামের এক যুবকের বিরুদ্ধে।
অভিযুক্ত অই প্রতারক যুবকের বাড়ি রায়পুর উপজেলার ১নং ওয়ার্ডস্থ মোল্লারহাট কাজিমুদ্দিন মিজি বাড়ি,তার পিতার নাম লোকমান মিজি। কখনো বিভিন্ন পরিচয়ের সূত্র ধরে আবার কখনো সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক বা ম্যাসেঞ্জারের অপব্যবহার করে বিভিন্ন জায়গার সুন্দরী মেয়েদেরকে টার্গেট করে গড়ে তোলে সখ্যতা,পরে নকল গার্ডিয়ান তৈরি করে অর্থ আভিজাত্যের লোভ লালসা দেখিয়ে তার হীনস্বার্থ চরিতার্থ করাই হচ্ছে মূল লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য। আর এভাবেই দিনের পর দিন মেয়েদের সাথে বিয়ের নাটক সাজিয়ে নানান কলাকৌশল আর চলচাতুরি খাটিয়ে যেমনি ভাবে করছে মেয়েদের দেহভোগ,তেমনি ভাবে মেয়েদের পরিবার থেকে টাকা পয়সা লুটে নিয়ে আবার সন্তান সন্তানাদি জন্ম দিয়েও বেকায়দায় ফেলছে বলে অভিযোগ করেছেন ভ’ক্তভোগীরা। শুধু তাতেই খান্ত নন অই প্রতারক রাছেল, এপর্যন্ত যত জনকে বিয়ের জালে ফাঁসিয়ে আবার ডিভোর্স দিয়েছেন তারা যদি পূণরায় কোন প্রকার মামলা মোকদ্দমা করার চেষ্টা করে তাহলে তাদেরকে এবং তার সন্তানদেরকেও প্রাণে মেরে ফেলার হুমকিও দিচ্ছেন বলে জানাযায়।
একজন অভিযোগকারী নিপা,গ্রামের বাড়ি গোপালগঞ্জ, দুইলক্ষ টাকা দেনমোহরে গত ১২ ডিসেম্বর ২০১৯ খ্রিঃ এ রাছেলের সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন, অথচ তিনি তখনও জানতেনইনা রাছেল এর পূর্বেও একাধীক নারীকে বিয়ে করে তাদের সাথে শারিরিক সম্পর্ক তৈরি করে দুই সন্তানের জনক ও হয়েছেন। মাত্র ৬মাস তার সাথে ঘর সংসার করে তার কাছ থেকে নগদ একলক্ষ সত্তর হাজার টাকা নিয়ে উদাও হয়ে যায় প্রতারক রাছেল। খোজাখুঁজির এক পর্যায়ে নিপা তার হদিছ পেলেও কাবিন নামায় উল্লেখিত গ্রামের ঠিকানা আর বর্তমান ঠিকানায় দেখতে পায় রয়েছে ব্যপক গরমিল ! কিন্তু রাছেলের বাড়িতে এসেও সেখোনে দেখা মিলে আরেক বৌ‘এর প্রতারনার জীবন। ১৫ জানুয়ারি ২০১১ (নিকাহ রেজিষ্ট্রেশন) সালে ৪ লক্ষ টাকা দেনমোহরে বিয়ে করে আপন খালাতো বোন সাদিয়া-কে (ছদ্মনাম), কিন্তু প্রায় ৯ বছর ঘর সংসার জীবনে সুখের মুখ দেখেনি সাদিয়া। এ প্রতিবেদকের কাছে অভিযোগ করে বলেন সংসার জীবনে রাছেলের কাছ থেকে শুধু লা না ব না ছাড়া আর কিছুই মিলেনি তার। বিদেশ গমনের নাম করে সাদিয়ার বাবার কাছ থেকে হাতিয়ে নেয় প্রায় ৫ লক্ষ টাকা,কিন্তু রাছেলের বিভিন্ন ক’-কীর্তির কথা সাদিয়ার কাছে স্পষ্ট হয়ে গেলে তাকেও ডিভোর্স দেয় রাছেল। বর্তমানে রাছেলের ওরসজাত ৪ এবং ৮ বছরের দুইটি সন্তান নিয়ে অমানবেতর জীবন যাপন করছে সাদিয়া। ঢাকা মিরপুর-১ এর বাসিন্দা নয়ন (ছদ্মনাম), ২৪ অক্টোবর ২০১৮ সালে রাছেলের সাথে বিয়ে বন্ধনে আবদ্ধ হয়েছিল সে, বুজতেই পারেনি একজন প্রতারকের খপ্পরে পা দিতে যাচ্ছে সে ! মাত্র ২ বছরের সংসার জীবনে ব্যবসাসহ বিভিন্ন ছল-চাতুরি করে কয়েকধাপে হাতিয়ে নেয় ১৫ লক্ষ টাকা, এছাড়া ৫ভরি স্বর্নালংকারও হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ করেন অই নারী। বর্তমানে ভ’ক্তভোগী নয়ন রাছেল-কে আইন আদালতের কথা বললে টাকা ফেরৎ দেওয়ার নামে বিভিন্ন টালবাহানা করছে বলে জানান তিনি।
রায়পুর উপজেলার বাবুর হাট ২নং ওয়ার্ডে রহিমা (ছদ্মনাম – নাম গুলো ক্ষতিগ্রস্থদের সামাজিক অবস্থান বিবেচনায় গোপন রাখা হলো) নামের মাত্র ক্লাস নাইনে পড়–য়া আরেকটি মেয়েকেও বিয়ের প্রলোভনে ফেলে তাকে শারিকি ভোগ করার তথ্য পাওয়া যায় এই প্রতারকের বিরুদ্ধে। এইরকম প্রায় ১৩ জন নারীর সম্ভ্রম হানীর অভিযোগের ভিত্তিতে আরও খোঁজ খবর নিতে গিয়ে বেরিয়ে আসে আরও অনেক গোপন তথ্য। ২০০৫ সালে তার নিজ গ্রামের এলাকায় মটরসাইকেল চুরি করে ধরা পড়ায় উত্তম মধ্যমের শিকার হয় এই প্রতারক। ২০১৯ সালের মাঝামাঝি সময়ে এলাকার ফজল নামের জনৈক ব্যক্তির কাছ থেকে ৭০ হাজার টাকা ধার নিয়ে তা ফেরত না দেওয়ার অভিযোগে রায়পুর থানায় একটি লিখিত অভিযোগও করেন অই ব্যক্তি। পরে থানার মাধ্যমে বিষয়টি সূরাহ করা হয় বলে জানাযায়। প্রতারক রাছেলের বিরুদ্ধে পাওয়া এইসব অভিযোগের ভিত্তিতে আইনী পক্রিয়া সম্পর্কে বিশিষ্ট আইনজীবি এ্যাড.মিজানুর রহমান মুন্সি বলেন এটি নারী ও শিশু নির্যাতনের অর্ন্তভ’ক্ত, এক্ষেত্রে ক্ষতিগ্রস্থরা আইনের আশ্রয় নিলে এ অপরাধীর বিচার নিশ্চিত করা সম্ভব। অভিযুক্ত রাছলের বাড়িতে গিয়ে দেখাযায় বর্তমানে সেখানেও শিখা নামের তার একজন স্ত্রী রয়েছেন,যাকে কিনা রাছেল কয়েকমাস পূর্বে বিয়ে করেছিলেন। রাছেল বর্তমানে কাতার প্রবাসী বলে জানাযায়, তবে তার বর্তমান স্ত্রী শিখা এবং তার ছোট বোন জানান রাছেল আমেরিকাতে রয়েছে। অভিযুক্ত রাছেলের সাথে এসব বিষয়ে জানতে যোগাযোগ করার কোন পক্রিয়াগত সহযোগিতা করার ব্যপারে নারাজ প্রকাশ করেন তার বর্তমান সহধর্মিনী শিখা। উপরন্ত তিনি সাংবাদিকদের সাথে বিভিন্ন কটুক্তি প্রকাশ করেন।



ফেসবুক পেইজ

বাংলাদেশে

আক্রান্ত
সুস্থ
মৃত্যু

বিশ্বে

আক্রান্ত
সুস্থ
মৃত্যু